বিনা মেঘে হঠাৎ বজ্রপাত, অটোরিকশার চালক-মালিকের মাথায় আঘাত !!!

বিনা মেঘে হঠাৎ বজ্রপাত,
অটোরিকশার চালক-মালিকের মাথায় আঘাত !!!

একটা জিনিষ আবিষ্কার বা আমদানি করার পূর্বে সুফল হবে না কুফল হবে, যারা দায়িত্বশীল আছেন তাদের ভাবনা করা উচিৎ ছিল। আজ যারাই নতুন আইন আবিষ্কার করেছেন, তারা কি জানেন এই গাড়ী গুলোর ব্যাংক বা এনজিওর লোনে অথবা কেহ বিটা-বাড়ি বিক্রি করে কিনেছে। হঠাৎ এই অর্থ উপার্জনের পথটা বন্ধ হয়ে গেলে তার মা বাবা ভাই বোন, স্ত্রী সন্তানের পেটের ক্ষুধা নিবারণ করবে কে? আর ঐ দেনাপাওনা মিটাবে কে ?

অটোরিকশার মালিক বা চালক কোন বড়লোক বা মধ্য আয়ের লোক নয়, ওরা বেশির ভাগ সমাজের নিম্ন আয়ের লোক। একটি অটোরিকশার আয়ের উপর নির্ভর করে কমপক্ষে দুইটি পরিবারের অন্ন বস্ত্র বাসস্থান শিক্ষা ও চিকিৎসা। অটোরিকশা বন্ধের এই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার জন্য সরকারের প্রতি দাবী জানিয়ে, একটি প্রস্তাব রাখছি।

গরীবের পেটে আঘাত না করে প্রথমে অটোরিকশা উতপাদন বা আমদানি সম্পুর্ন নিষিদ্ধ করা হউক, দেশের ভিতরে প্রত্যেকটি অটোরিকশার শোরুম বন্ধ করে দেওয়া হউক। এ আদেশ অমান্য করে যারা অটোরিকশা বিক্রি করতে চাইবে তাদের অটোরিকশা গুলো সিজ করা হউক, এবং আদেশ অমান্যকারীর বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা রাখা হউক।
সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আমার এই ক্ষুদ্র চিন্তায় তাই মনে করি।